• শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৬:২৪ পূর্বাহ্ন

বাংলাদেশ ভারতের সম্পর্ক ঐতিহাসিক- হাইকমিশনার প্রণয় ভার্মা

স্বাধীন ভোর ডেস্ক / ১০৮ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশের সময় সোমবার, ২ অক্টোবর, ২০২৩

সোহাগ মিয়াজী
বাংলাদেশের নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনার প্রণয় ভার্মা বলেন, বাংলাদেশ ও ভারতের সম্পর্ক ঐতিহাসিক। আমরা যেমন ভৌগোলিক, তেমন ভাষার আবার সংস্কৃতিরও। ভারত কখনও বাংলাদেশকে বাদ দিয়ে উন্নয়নের চিন্তা করে না। এটি আমাদের বিশেষ সম্পর্ক। তিনি বলেন, বাংলাদেশের আর্থসামাজিক উন্নয়ন ও শিক্ষার মান উন্নয়নে ভারত স্বাধীনতার পর থেকে সহযোগিতা করে আসছিল। কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি বন্ধু দেশের প্রতি ভারতের উপহার করোনা কালীন সংকটের মাঝেই এই ভবনের কাজ শুরু হয়েছে। গত বছরেও এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে অনেকে জিপিএ -৫ পেয়েছে। বাংলাদেশে অনেক প্রজেক্ট ভারতের অর্থায়নে হচ্ছে। এই কাজটি সবচেয়ে ভালো ও সমৃদ্ধ। আমি বিশ্বাস করি এই অবকাঠামো উন্নয়নের মাধ্যমে এই অঞ্চলের শিক্ষার্থীরা শিক্ষার মানে এগিয়ে যাবে। এ অঞ্চলের শিক্ষার্থীরা আর বাইরে যেতে হবে না। সামাজিক ও আর্থিক উন্নতি হবে। এসময় তিনি ১৯৭১ সালে যুদ্ধের সহযোগিতার কথা উল্লেখ করে বলেন, ভারত বহু আগ থেকেই বাংলাদেশের মিত্র। দুদেশ এক সাথেই সমৃদ্ধ হচ্ছে। যুদ্ধের সময় বাংলাদেশকে ভারত যে সহযোগিতা করেছে তা বাংলাদেশের প্রতি ভালোবাসা। এতেই বুঝা যায় বাংলাদেশকে ভারত প্রথম গুরুত্ব দেয়। বাংলাদেশের রেলপথ, সড়ক পথসহ সকল ক্ষেত্রেই ভারতের অবদান রয়েছে। এই উন্নয়নের হাত সবসময় অব্যাহত থাকবে। তিনি গতকাল সোমবার বিকেলে চৌদ্দগ্রাম উপজেলার কাশিনগর ইউনিয়নে ভারত সরকারের অর্থায়নে কাশিনগর ডিগ্রি কলেজের নির্মিত স্নাতক ভবনের শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে (হিন্দিতে) এসব কথা বলেন । অনুষ্ঠানের শুরুতে নবনির্মিত ভবনের ফলক উন্মোচন করেন প্রধান অতিথি ভারতীয় হাই কমিশনার প্রণয় ভার্মা। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক রেলপথ মন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা, মোঃ মজিবুল হক মুজিব এমপি, দৈনিক কালবেলার সম্পাদক সন্তোষ শর্মা,কুমিল্লা জেলা প্রশাসক খন্দকার মু. মুশফিকুর রহমান, পুলিশ সুপার আব্দুল মান্নান সহ সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা। কাশিনগর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মোশাররেফ হোসেনের সঞ্চালনায় সভাপতিত্ব করেন কাশিনগর ডিগ্রী কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মো. সামসুল আলম।অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, জাতীয় সংসদের যুগ্ম সচিব কিবরিয়া মজুমদার । এতে আরো বক্তব্য রাখেন, চৌদ্দগ্রাম উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুস সোবহান ভূঁইয়া হাসান,চৌদ্দগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও পৌর মেয়র জি এম মীর হোসেন মীরু,চৌদ্দগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ রহমত উল্লাহ বাবুল,চৌদ্দগ্রাম উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান এ বি এম এ বাহার,সেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য আবু তাহেরচৌদ্দগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আলী হোসেন চেয়ারম্যান,কুমিল্লা জেলা আওয়ামী সদস্য বিশিষ্ট শিল্পপতি কামাল উদ্দিন সি আই পি,

 

উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রফিকুল ইসলাম হায়দার চৌধুরী কামাল,আক্তার হোসেন পাটোয়ারী,উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ভিপি ফারুক আহমেদ মিয়াজী, জাকির হোসেন ভূঁইয়া,উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিলের সভাপতি আবুল হাশেম চেয়ারম্যান,চৌদ্দগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আবদুল বারিক,অধ্যাপক মফিজুর রহমান গুনবতী ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন,বাতিসা ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান জি এম জাহিদ হোসেন টিপু,গুনবতী ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান সৈয়দ আহমেদ খোকন,গুনবতী ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা, কালিকাপুর ইউপি চেয়ারম্যান ভিপি মাহবুব হোসেন মজুমদার,উজিরপুর ইউপি চেয়ারম্যান নাঈমুর রহমান মজুমদার মাছুম,শুভ পুর ইউপি চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান মজুমদার,চিওড়া ইউপি চেয়ারম্যান আবু তাহের,মুন্সীরহাট ইউপি চেয়ারম্যান মাহফুজ আলম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম,কামরুল হাসান মুরাদ,কামরুল আলম মোল্লা,ঘোলপাশা ইউপি চেয়ারম্যান এ কে খোকন,উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন সরদার,উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি আরছ মজুমদার, চৌদ্দগ্রাম উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তৌফিকুল ইসলাম সবুজ, সাধারণ সম্পাদক কাওছার হানিফ শুভ প্রমুখ। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা মুজিবুল হক এমপি বলেন, ভারত আমাদের বন্ধুপ্রতিম প্রতিবেশী দেশ। মহান মুক্তিযুদ্ধে ভারতের অবদানকে কৃতজ্ঞ চিত্তে স্মরণ করছি। বাংলাদেশের আত্ম সামাজিক উন্নয়নে ভারত সরকারের কাছে আমরা ঋণী। প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ শান্তি সম্প্রীতি বজায় রয়েছে । সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করতে স্বাধীন বিরোধী চক্র যেন ষড়যন্ত্র করতে না পারে আমাদের সজাগ থাকতে হবে। তিনি আরো বলেন , বাংলাদেশ স্বাধীন ও ধর্মনিরপেক্ষ দেশ ।সকল ধর্মের মানুষ সমান অধিকার ভোগ করছে । জামাত বিএনপির স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি । এরা ক্ষমতায় এলে এ দেশের শান্তি সম্প্রীতি বিনষ্ট হবে। তিনি আরো বলেন,২০০১ সালে জামাত নেতা ডাঃ তাহের সন্ত্রাসী এনে কেন্দ্র দখল করে চৌদ্দগ্রাম থেকে এমপি হয়েছিলেন। ক্ষমতায় এসে তারা চৌদ্দগ্রামে হত্যা খুনের রাজত্ব কায়েম করেছিল। চৌদ্দগ্রামের কোন উন্নয়ন হয়নি। ওই জোট শাসনামলে সারাদেশে সন্ত্রাস ও শান্তি সম্প্রীতি বিনষ্ট হয়েছিল। জননেত্রী শেখ হাসিনার ক্ষমতায় এসে দেশ থেকে জঙ্গিবাদ সন্ত্রাসবাদ দমন করে দেশের ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন । সারা বিশ্বের মানুষ শেখ হাসিনার প্রশংসা করে। আসুন এদেশের আত্মসামাজিক উন্নয়ন ও উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে এবং আগামীর স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনকল্পে আওয়ামী লীগের পক্ষে নৌকা মার্কার পক্ষে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আমরা কাজ করি। তিনি আরো বলেন, আমি যখন রেলমন্ত্রী ছিলাম বিগত ২০১৮ সালের ২৮ অক্টোবর তৎকালীন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা কাশিনগর ডিগ্রী কলেজের এই অনার্স ভবনটি নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেছিলেন। ভারত সরকারের অর্থায়নে ১ কোটি ৭২ লাখ টাকা ব্যায়ে কাশিনগর ডিগ্রী কলেজের এই আধুনিক চার তলা ভবনটি নির্মাণ করে দেওয়ায় ভারতের  তৎকালীন হাইকমিশনার ও ভারত সরকার কে ধন্যবাদ জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও সংবাদ