• শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৭:৫৩ পূর্বাহ্ন

বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাকিম সরকার পাহাড়ি জনপদের বাতিঘর

স্বাধীন ভোর ডেস্ক / ৬৯ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশের সময় সোমবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২৩

শেরপুর প্রতিনিধি:
শেরপুর নালিতাবাড়ীতে সেঁজুতি সাহিত্য সংসদের আয়োজনে পাহাড়ি জনপদের বাতিঘর খ্যাত বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাকিম সরকারের স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।রোববার (১৭ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৫টায় সেঁজুতি বিদ্যানিকেতন প্রাঙ্গণে বীর মুক্তিযোদ্ধা আক্তারুজ্জামান এর সভাপতিত্বে আয়োজিত স্মরণসভায় মুঠোফোনে বক্তব্য উপস্থাপন করেন,বাংলার অগ্নিকন্যা,সংসদ উপনেতা,বীর মুক্তিযোদ্ধা বেগম মতিয়া চৌধুরী, উক্ত স্মরণ সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক এনায়েত আলী। প্রধান অতিথি বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক এনায়েত আলী বলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাকিম সরকার আমাদের চেতনার বাতিঘর। স্মরণসভায় আরও বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা ও লেখক আব্দুর রহমান তালুকদার,নালিতাবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও আব্দুল হাকিম সরকারের জ্যেষ্ঠ পুত্র মোস্তফা কামাল,শেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য, নালিতাবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ও আব্দুল হাকিম সরকারের পুত্র সরকার গোলাম ফারুক, প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি এম এ হাকাম হীরা,সাবেক চেয়ারম্যান নাজিমুদ্দিন,প্রগতিশীল রাজনীতিবিদ ও শিক্ষক জাহিদুল ইসলাম,প্রিন্সিপাল মুনীরুজ্জামান,মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম খোকন প্রমুখ।স্মরণ সভার সঞ্চালনা করেন সেঁজুতি সাহিত্য সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু ইলিয়াস সাদ্দাম। উল্লেখ্য বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রয়াত আব্দুল হাকিম সরকার বৃহত্তর ময়মনসিংহ জেলার অন্তর্গত (বর্তমান শেরপুর জেলা) রূপনারায়নকুড়া ইউনিয়নের নিজপাড়া গ্রামের ঐতিহ্যবাহী সরকার পরিবারে হাজী তমির উদ্দিন সরকার ও ফজিলাতুন নেছার ঘর আলোকিত করে ১৯২০ সালের ৩১ ডিসেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। রুপনারায়নকুড়া প্রাথমিক বিদ্যালয় হতে প্রাথমিক শিক্ষা শেষে জামালপুর সরকারি হাই স্কুল থেকে মেট্রিকুলেশন ও ময়মনসিংহ আনন্দ মোহন কলেজ থেকে বি.এস.সি পাশ করেন।শিক্ষা শেষে শিক্ষকতা দিয়ে শুরু করেন কর্মজীবন আনন্দ মোহন কলেজের ছাত্র অবস্থায় রাজনীতিতে সক্রিয় ভাবে জড়িয়ে পড়েন। ১৯৪৯ সালে আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য এবং (অবিভক্ত) ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ছিলেন।১৯৪৯ সালে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠালগ্নে নালিতাবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হন। ১৯৫৪ সালের যুক্তফ্রন্ট নির্বাচনে শেরপুর-২ (নকলা, নালিতাবাড়ী ও ঝিনাইগাতী) আসনে নৌকা মার্কায় বিপুল ভোটে M.L.A (Member of Legislative Assembly) নির্বাচিত হন। ১৯৭০ সালের ৭ ডিসেম্বর ( নকলা,নালিতাবাড়ী ও ঝিনাইগাতীর) আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে নির্বাচনে নিরঙ্কুশ বিজয় অর্জন করে M.N.A (Member of National Assembly) নির্বাচিত হন।বাঙালি জাতির মহানায়ক জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭৫ সালে বাকশাল প্রতিষ্ঠালগ্নে আব্দুল হাকিম সরকারকে শেরপুর জেলার ডেপুটি গভর্নর নিয়োগ করেছিলেন এবং আমৃত্যু নালিতাবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। ১৯৭১ সালে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের অন্যতম সংগঠক এবং মুক্তিযুদ্ধ পরিচালনা কমিটির দপ্তর সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন ও মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন।১৯৮১ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও সংবাদ