• বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ০৮:১৮ অপরাহ্ন

ঝিকরগাছায় শতবর্ষী পুরানো গাছ ভেঙে পড়ে নিহত-২

স্বাধীন ভোর ডেস্ক / ৮৯ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশের সময় শুক্রবার, ১৮ আগস্ট, ২০২৩

যশোর  প্রতিনিধি 
যশোর জেলার ঝিকরগাছা উপজেলায় বেনেয়ালি বাজার সংলগ্ন ব্র্যাক অফিসের সামনে যশোর-বেনাপোল মহাসড়কে কাভার্ড ভ্যানের ধাক্কায় শতবর্ষী মৃতপ্রায় গাছের ডাল ভেঙ্গে বাসের ছাদে পড়লে ২ জন নিহত হয়। বৃহস্পতিবার আনুমানিক রাত দশটার দিকে এই অনাকাঙ্খিত মর্মান্তিক দুর্ঘটনাটি ঘটে। নিহতরা হলেন, যশোর সদর উপজেলার উপশহর ডি ব্লকের লিয়াকত আলীর ছেলে সালাউদ্দিন (৪৫) ও বেনাপোল বড় আঁচড়া গ্রামের মুনছুর আলীর ছেলে শিমুল হোসেন (৩৫)।  পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাত দশটার দিকে বেনাপোল থেকে যশোর গামী কাভার্ড ভ্যানটি যশোর-বেনাপোল মহাসড়কের বেনেয়ালী ব্র্যাক অফিসের সামনে পৌঁছালে যশোর থেকে ছেড়ে আসা বেনাপোলগামী যাত্রীবাহী বাসকে সাইড দিতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে পুরানো কড়ই গাছে ধাক্কা মারলে পুরানো কড়ই গাছের উপরের অংশ যাত্রীবাহী বাসের ছাদের উপরে ভেঙ্গে পড়লে ছাদে থাকা যাত্রী সালাউদ্দিন ঘটনাস্থলেই মারা যান। পেশায় তিনি একজন ডায়নামো মিস্ত্রি ছিলেন। এ ঘটনায় গুরুতর আহত হন বাসের ছাঁদে থাকা অপর যাত্রী শিমুল হোসেন। ঐ অবস্থায় তাকে ঝিকরগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।  দুর্ঘটনার পরই সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে, দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে ঝিকরগাছা থানা পুলিশ, হাইওয়ে পুলিশ ও ঝিকরগাছা ফায়ার সার্ভিস টিম উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ঝিকরগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ সুমন ভক্ত ঘটনাটি নিশ্চিত করে জানান, দুর্ঘটনার পরই ঝিকরগাছা থানা পুলিশ, হাইওয়ে পুলিশ ও ঝিকরগাছা ফায়ার সার্ভিস টিম ঘটনাস্থলে হাজির হয়। লাশ উদ্ধার করে হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। পরে সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক করা হয়েছে। উল্লেখ থাকে, যশোর বেনাপোল মহাসড়কের দুপাশে অবস্হিত মৃতপ্রায় ও ঝুকিপূর্ণ গাছের কারণে প্রতিনিয়ত এমন হৃদয় বিদারক দূর্ঘটনা ঘটছে এবং মানুষ মারা যাচ্ছে। ২০১৭ সালে গাছগুলো অপসারণ করে ৪ লেনের রাস্তা নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছিলো সরকার। কিন্তু পরিবেশবাদী নামধারী কিছু বিবেক বুদ্ধিহীন মানুষ গাছ মারার বিরোধিতা করে হাইকোর্টে একটি রিট পিটিশন দাখিল করে। ফলস্বরূপ গাছগুলো রেখেই রাস্তা নির্মাণ করা হয়। যে সব বিবেক বুদ্ধিহীন মানুষগুলো বিরোধিতা করার কারণে গাছগুলো কাটা সম্ভব হয়নি। আর এখন রাস্তার মাঝে গাছ থাকার কারণে হরহামেশাই মানুষ মারা যাচ্ছে, আমাদের উচিৎ এই সব  পরিবেশবাদীদের নামে হত্যা মামলা দায়ের করা।এদিকে গাছগুলো অপসারণ করার জন্য স্থানীয় জনগন এবং বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করে আসছে। এই অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্ঘটনার কারণে তিনি সাধারণ মানুষের মাঝে  ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। তারা যতদ্রুত সম্ভব এই শতবর্ষী মৃতপ্রায় গাছগুলি অপসারণ করে যশোর বেনাপোল মহাসড়ক ৬ লেনে উন্নীতকরণের দাবি জানিয়েছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও সংবাদ